“ঝরা ফুল” এর আয়োজনে পথশিশুদের নিয়ে মেহেদী হাসানের জন্মদিন উদযাপন

0
932

সাধারণত মানুষ জন্মদিন পালন করে বিশাল আয়োজন করে খাওয়া দাওয়া আর গিফট আত্মীয় বন্ধুদের নিয়ে। কিন্তু ব্যতিক্রমী এক জনমদিনের আয়োজন ছিল গতকাল ২৫ ডিসেম্বর২০১৭ ধানমন্ডি লেক এ।প্রবাসী লেখক, সাংবাদিক ও আমাদের বাংলাদেশ এর প্রকাশক মেহেদী হাসান  বিগত কয়েক বছর যাবত তিনি নিজের জন্মদিনে ব্যাতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠান যেমন এতিম, অনাথ, দুস্থ বাচ্চারের মাঝে খাবার বিতরণ ও তাদের জন্য খেলাধুলা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন। মেহেদী হাসান চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা থানার চন্ডিপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তিনি ব্যবসা প্রশাসনে পিএইচডিতে অধ্যয়নরত আটলান্টিক ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। যোগ্যত্য ও দক্ষতার সাথে সংগতিপূর্ণ কাজে নিজেকে নিয়োজিত করে দেশ ও জাতির জন্যে জনস্বার্থে কাজ করতে চান।

বিজ্ঞাপন
DSC01115
চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার একাংশ ০১
06
একটি মাত্র হাত শিশুটির এবং দুই পা নেই। ছবি এঁকে পুরস্কার পেয়ে কি খুশি সে ছবি দেখে বোঝা যাচ্ছে।

মেহেদী হাসানের নিজ অর্থায়নে ঝরা ফুল সংগঠনের আয়োজনে পথশিশুদের নিয়ে ঢাকার ধানমন্ডি লেকে দুপুরবেলা আহারের পাশাপাশি শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।এছাড়া শিশুরা গান, ছড়া ও কবিতা আবৃত্তি করে। লাল সবুজ স্কুলের পথশিশুদের নিয়ে মেহেদী হাসানের জন্মদিনের কেক কেটে খাইয়ে ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেয়া হয়। 05

কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবশেন করে লাল সবুজের পথশিশু ছাত্র-ছাত্রীরা

26178051_10215274452474058_399983391_o
শিশুদের চিত্রাঙ্কন সামগ্রী বিতরণের দ্বায়িত্বে আহবায়ক আরিফ আহসানউল্লাহ

আরো উপস্থিত ছিলেন আমাদের বাংলাদেশ এর সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম জুয়েল, অস্ট্রেলিয়া হোয়াইট রিবন সিটি এম্বাসেডর আবুল কালাম আজাদ খোকন, সারডা সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক মুরাদ ভূইয়া, বিশিষ্ট শিল্পপতি রেজাউল করিম, শিশু-কিশোরদের প্রিয় কচিপাতা ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও প্রকাশক আলেয়া বেগম আলো সহ ঝরা ফুল, আগামীর বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ও লাল সবুজ ফাউন্ডেশন পরিবারের সকল সদস্য।

মেহেদী হাসানের এমন ব্যতিক্রমী আয়োজনের প্রশংসা করেন উপস্থিত সকলে।

08
ঝরা ফুলের কর্মীরা ও কচিপাতা ম্যাগজিনের সম্পাদক

অনুষ্ঠানটিতে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল কচিপাতা ম্যাগাজিন। যেখানেই শিশুদের নিয়ে ভালো কাজ হোক না কেন কচিপাতার শুভকামনা আছে এবং থাকবে।আমাদের সকলের একটু একটু কাজে একদিন আমরা স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে পারব।

07
ঝরা ফুল এর কর্মী ফয়সাল মাহমুদ এর ছেলে রেজওয়ান মাহমুদ (বায়ে চশমা পরিহিত) ও কচিপাতা ম্যাগজিনের ক্ষুদে ফটোসাংবাদিক অনন্ত মুহাম্মদ (ডানে)

কচিপাতার পক্ষ থেকে ছবি তুলেছে ক্ষুদে ফটোগ্রাফার সৈয়দ অনন্ত মুহাম্মদ, বয়স ১১, অনন্ত ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ে।

একটি রিপ্লাই দিন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.