‘চন্দ্রাবতী শিশুসাহিত্য সম্মেলন’ শুরু

0
496

‘চন্দ্রাবতী শিশুসাহিত্য সম্মেলন’ শুরু

চন্দ্রাবতী একাডেমি আয়োজিত দুই দিনব্যাপী শিশুসাহিত্য সম্মেলন শুরু হয়েছে গতকাল শুক্রবার। বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয় সন্ধ্যায়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ  সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, লেখক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও শিশুসংগঠক আবুল মোমেন, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, এবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মসিউর রহমান চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। 

অনুষ্ঠানে চন্দ্রাবতী একাডেমির জন্য শুভ কামনা জানিয়ে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন,‘অনেক চমৎকার আয়োজন। অনেক বড় পরিসরে চন্দ্রাবতী একাডেমি শিশুসাহিত্য সম্মেলন করছে। তাদের জন্য সবসময় শুভ কামনা আমার থাকবে।’

সম্মেলন প্রসঙ্গে চন্দ্রাবতী একাডেমির নির্বাহী পরিচালক কামরুজ্জামান কাজল এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘৫ম বারের মতো এই সম্মেলন হচ্ছে। ৪০০ জন রেজিস্ট্রেশনকৃত লেখক অংশগ্রহণ করছেন দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলনে। ভবিষ্যতে শুধু দেশের শিশুসাহিত্যক নন, বিদেশের খ্যাতিমান শিশুসাহিত্যকদেরও আমরা আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা করেছি। আশা করছি, সবাই আমাদের পাশেই থাকবেন।’

অনুষ্ঠানে চন্দ্রাবতী একাডেমি শিশুসাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্ত  দুজন স্বনামধন্য ব্যক্তির হাতে পুরস্কার  ও ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন কথাসাহিত্যিক ও শিশুসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন এবং বিজ্ঞানলেখক সুব্রত বড়ুয়া।

পুরস্কার পেয়ে  নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ‘আমার লেখালেখি শুরু হয়েছিল শিশুসাহিত্য দিয়ে। আমি এখনো নিয়মিত শিশুদের জন্য লিখি। বছরে দুটো বই শিশুদের জন্য  লেখার চেষ্টা করি। চন্দ্রাবতী একাডেমির প্রতি শুভ কামনা ও শুভেচ্ছা রইল।’

বিজ্ঞানলেখক সুব্রত বড়ুয়াও চন্দ্রাবতী একাডেমীকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে কবি কাদের নওয়াজকে স্বরণ করে আলোচনা করা হয়। এই পর্বে  প্রধান অতিথি ছিলেন শিশুসাহিত্যিক রফিকুল হক। সভাপতিত্ব করেন সাতরঙের নির্বাহী সম্পাদক সুবল কুমার বণিক। সেই সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন শিশুসাহিত্যিক আখতার হুসেন ও শিশুসাহিত্যিক ফারুক নওয়াজ।  

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শিশুসাহিত্যিক আনজীর লিটন, শিশুসাহিত্যিক মিহির মুসাকী, শিশুসাহিত্যিক রোমেন রায়হান, শিশুসাহিত্যিক রহীম শাহ, কথাসাহিত্যিক ফারুক মঈনউদ্দীন, শিশুসাহিত্যিক রাশেদ রউফ, কথাসাহিত্যিক মোশতাক আহমেদ, কথাসাহিত্যিক মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলনের আজ শেষ দিন। বিভিন্ন অধিবেশনে আজ সারাদিন প্রবন্ধপাঠ, আলোচনা ও ছড়া-কবিতা আবৃত্তির মাধ্যমে শিশুসাহিত্যের একটি সংক্ষিপ্ত রূপরেখা  তুলে ধরা হবে। সম্মেলনে আজ অংশগ্রহণ করবেন কবি আসাদ চৌধুরীসহ দেশের খ্যাতিমান সব শিশুসাহিত্যিক।

একটি রিপ্লাই দিন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.